February 23, 2024

প্রাণভয়ে মিয়ানমার ছাড়ছেন হাজারো নাগরিক, প্রতিবেশী দেশগুলোতে নামতে পারে শরণার্থীর ঢল

উত্তপ্ত মিয়ানমার। জান্তা সরকারের সামরিক বাহিনী ও বিদ্রোহীদের সংঘাতে গৃহযুদ্ধের শঙ্কা তৈরি হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে, দেশ ছেড়ে পালাচ্ছেন হাজার হাজার নাগরিক। প্রাণভয়ে ভিটেমাটি ছেড়ে শরণার্থী জীবন বেছে নিচ্ছেন তারা। সময়ের সাথে সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলোতে যেভাবে সংঘাত তীব্র হচ্ছে, তাতে প্রতিবেশী দেশগুলোতে মিয়ানমারের নাগরিকদের ঢল নামতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মূলত, ২০২১ সালে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের পর বিদ্রোহীদের সবচেয়ে বড় প্রতিরোধের মুখে পড়েছে জান্তা সরকার। আর তাতেই প্রাণভয়ে জন্মভূমি ছেড়ে শরণার্থী জীবন বেছে নিচ্ছেন নিরস্ত্র সাধারণ মানুষ।

অসহায় এসব মানুষ বলছেন, সেনারা গ্রামে গিয়ে ঘরে ঘরে দরজায় কড়া নেড়ে সবাইকে বাইরে বেরিয়ে আসতে বলতো। তাদের এই আচরণে মানুষ সবসময় ভয়ে আর আতঙ্কে থাকতো। কেউ বাইরে না বের হলে ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করতো তারা। মিয়ানমারে কর্মসংস্থানের দুর্দশা উল্লেখ করে তারা বলেন, সেখানে কোনো কাজ নেই, অর্থ নেই। তাই বাধ্য হয়ে আমরা দেশ ছাড়ছি।

চলমান এই সংঘাত তো থামছেই না, সময়ের সাথে উল্টো পরিস্থিতি আরও জটিল হচ্ছে। মিয়ানমারের সামরিক সরকার বিরোধী অন্তত তিনটি সশস্ত্র গোষ্ঠী একজোট হয়ে একের পর এক এলাকা দখল করছে। সেনাবাহিনীর এমন ব্যর্থতায় বেশ চাপে পড়ছে জান্তা সরকার। এমন পরিস্থিতিতে ধারণা করা হচ্ছে, আগামী কয়েক সপ্তাহে মিয়ানমারের আরও বিপুল নাগরিক প্রতিবেশী দেশে আশ্রয় নেবেন।

এর আগে, ২০১৭ সালে সেনা নিপীড়ন থেকে প্রাণে বাঁচতে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা। ছয় বছরেও নিজ দেশের এই নাগরিকদের ফেরত নেয়নি মিয়ানমারের সরকার।

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *