February 26, 2024

জড়ো হচ্ছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নির্ধারিত সময়ের আগেই বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ ফটকে সমাবেশস্থলে জড়ো হচ্ছেন। ইতোমধ্যে দলের একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা সমাবেশ মঞ্চে উপস্থিত হয়েছেন। একই সঙ্গে মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসছেন কর্মীরা।

আজ সকাল ১০টার দিকে সমাবেশ মঞ্চে উপস্থিত হন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তার আগে সমাবেশ মঞ্চে আসেন মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ সহ কয়েকজন নেতা।

মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়েছেন মৎস্যজীবী লীগের নেতাকর্মীদের একাংশ। এরপর বেলা ১০টা নাগাদ সমাবেশস্থলে সুসজ্জিত মিছিল নিয়ে আসেন নারায়নগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল কায়সারের কর্মীদের একটি মিছিল।

এছাড়া মহিলা আওয়ামী লীগের বেশ কিছু নেতাকর্মী সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশের জন্য বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেটের সামনে মঞ্চ প্রস্তুত করা হয়েছে। এখন সমাবেশ শুরুর অপেক্ষা করছেন নেতাকর্মীরা।

এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে আওয়ামী লীগকে তাদের পছন্দের জায়গাতেই সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ।

অপর দিকে সরকারের পদত্যাগের একদফা দাবি আদায়ের মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে ভোর থেকেই নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে। দুপুর ২টায় আনুষ্ঠানিকতা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ভোরেই নয়াপল্টনের সড়ক দখল করে নিয়েছে নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীদের মিছিল, স্লোগানে মুখরিত হয়েছে গোটা নয়াপল্টন এলাকা।

শনিবার সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে আসছেন। তাদের হাতে দলীয় ও জাতীয় পতাকা শোভা পাচ্ছে। এরই মধ্যে নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে পল্টন থানা পর্যন্ত কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে।

অন্যদিকে মতিঝিল এলাকায় মাইক লাগাচ্ছে জামায়াতের নেতাকর্মীরা। আরামবাগ এলাকায় ইতোমধ্যে উপস্থিত হয়েছেন হাজার হাজার নেতাকর্মী।

ডিএমপি ও জামায়াতের একাধিক সূত্র থেকে জানায়ায়, সংঘাত এড়াতে কয়েকটি শর্তে মৌখিক একটি অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এরপরই মহাসমাবেশ স্থলে নেতাকর্মীদের আসার নির্দেশ দিয়েছে দলটি।

জামায়াতের প্রচার বিভাগ জানিয়েছে এই মহাসমাবেশে ১০ লাখ নেতাকর্মী উপস্থিত থাকবে। যার জন্য নির্দেশনা ও দেওয়া হয়েছে ঢাকাসহ সারাদেশে। ঢাকার দুই মহানগর থেকেই ২ লাখ নেতাকর্মী সমাবেশস্থলে আনার টার্গেট করা হয়েছে।

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *