February 24, 2024

আগে মনে করতাম বাসে গেলে সমস্যা, এখন ট্রেনেও

চলাচলের ভয় রয়েই গেলো। আগে মনে করতাম বাসে গেলে সমস্যা। এখন ট্রেনে গেলেও সমস্যা।’

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) কিশোরগঞ্জে ভৈরবে ট্রেনের দুর্ঘটনাস্থল জগন্নাথপুরে এসব কথা বলছিলেন মো. মিল্লাত নামের এক ব্যক্তি।

মিল্লাতের বাড়ি কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায়। তিনি দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে ট্রেনেই যাতায়াত করেন। গতকালকের ঘটনার পর থেকে তার মনে ভয় কাজ করছে। মিল্লাত জানান, ট্রেন দুর্ঘটনার সময় তিনি স্টেশনেই ছিলেন। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যান। গিয়ে দেখেন অবস্থা ভয়াবহ।

এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনা আগে কখনো দেখেনি। ঘটনার পরের ঘটনা ছিল আরও ভয়াবহ। চারদিক শুধু মানুষের আহাজারি। কাকে রেখে কাকে উদ্ধার করবে মানুষ! প্রথমে স্থানীয় এলাকাবাসী উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। পরে ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও বিজিবিও অংশ নেয় উদ্ধার অভিযানে’, বলছিলেন দীর্ঘ ট্রেনে ভ্রমণ করা মিল্লাত নামের ওই ব্যক্তি।

সোমবার (২৩ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ভৈরব জংশনের কাছাকাছি জগন্নাথপুর এলাকায় এগারসিন্দুর ও চট্টগ্রামগামী মালবাহী ট্রেনের মধ্যে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ১৭ জন নিহত হন। নিহত ১৬ জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে একজনের পরিচয় এখনো শনাক্ত করা যায়নি। আহতের বেশিরভাগই প্রথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বেশ কয়েকজনকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

About The Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *